শ্রীমঙ্গল পৌরসভা মুখ থুবরে পড়ে আছে —উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ এমপি।

198

মৌলভীবাজারঃ মৌলভীবাজার ৪ আসনের ৬ বারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য (সাবেক চীফ হুইপ) উপাধ্যক্ষ মো: আব্দুস শহীদ বলেছেন, শ্রীমঙ্গল পৌরসভা মুখ থুবরে পড়ে আছে। পর্যটন শহর চায়ের রাজধানীখ্যাত শ্রীমঙ্গল নানা সমস্যায় জর্জরিত। রাস্তার উপর অবৈধ গাড়ী পার্কিং, ফুটপাত বেদখল এসব সমস্যা এখন তীব্র আকার ধারন করেছে। পৌরসভার কাউন্সিলরা মার্কেটের দোকান এবং ফুটপাত বরাদ্দ দিয়ে দুর্নীতি করছেন, অবৈধ ভাবে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। নাগরিকরা ট্যাক্স দিচ্ছেন কিন্তু নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। এভাবে চলতে পারে না। তিনি পৌরসভার প্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে বলেন, নাগরিক সমস্যা সমাধান করতে না পারলে পদ ছেড়ে দিন, আন্তরিক ভাবে প্রচেষ্ঠা করলে এসব সমস্যা একদিনেই সমাধান করা সম্ভব।নির্বাচনের মেয়াদ উর্ত্তীনের দীর্ঘ দিন অতিবাহিত হলেও এখনও নির্বাচনের কোন লক্ষ দেখা যাচ্ছে না। শ্রীমঙ্গলে প্রচুর ভোয়া ভোটার রয়েছে বলে তিনি জানান। এবারের নির্বাচনে তিনি ভুয়া ভোটা ধরার জন্য মাঠে থাকবেন বলে হুসিয়ারি দেন,আর সাধারন নাগরিকদের উদ্দেশ্যে বলেন ভবিষ্যৎে পৌরসভার মেয়র নির্বাচন বুজেশুনে করবেন। মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলে উন্নয়ন সম্ভাবনা নাগরিক সমস্যা ও উত্তোরণের উপায় শীর্ষক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। লন্ডন প্রবাসী, নতুন দিন টুয়েন্টিফোর ডটকমের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান এম.এ মতিনের উদ্যোগে ও শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের আয়োজনে সোমবার ৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় শহরস্থ পানসী রেস্টুরেন্টের হলরুমে শ্রীমঙ্গল শহরের নানা নাগরিক সমস্যা এবং শহরকে সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন শহর হিসেবে গড়ে তুলতে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের সভাপতি বিশ্বজিত চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক এম.ইদ্রিস আলির সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রীমঙ্গল সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবুল কালাম আজাদ, শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার আশরাফুজ্জামান, শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহিদুল আলম, দ্বারিকাপাল মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ সৈয়দ মনসুরুল হক, উপাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আব্দুস শহিদ কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ পিয়ালী ভৌমিক, মৌলভীবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এড. মিজানুর রহমান টিপু, শ্রীমঙ্গল পৌরসভার কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র কাজী মো: আব্দুল করিম, শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ কে.এম.নজরুল,মৌলভীবাজার জেলা ট্রাফিক বিভাগের পুলিশ পরিদর্শক ও অপারেশন ইনচার্জ মোহাম্মদ সালাহ উদ্দিন কাজল, ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (শ্রীমঙ্গল -কমলগঞ্জ) স্বপন কুমার রায়, শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে থানার ওসি মো. ইসমাইল, ট্যুরিষ্ট পুলিশের শ্রীমঙ্গল সাব জোনের পরিদর্শক গোপাল কৃষ্ণ দাস, শ্রীমঙ্গল সড়ক উপ-বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী রাশেদুল হক। মতবিনিময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সুশিল সমাজের প্রতিনিধি বৃন্দ,সাংবাদিক ও শহরের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। সভায় বক্তারা শ্রীঙ্গল শহরের ফুটপাত,ড্রেনেজ ব্যবস্থা,পাবলিক টয়লেট নির্মাণ,ময়লা আবর্জনার স্তুপ নিষ্কাসন, ভাঙ্গা রাস্তা, অব্যবস্থাপনার বাজার,ঐতিহ্যবাহী সাগরদিঘী সংস্কার,রেলওয়ে মাঠ বেদখল,শহরের যানজট নিরসন হাসপাতালের অনিয়ম,ট্রেনের টিকেট সংকট সহ নানা নাগরিক সমস্যা তুলে ধরেন। বক্তারা বলেন মৌলভীবাজার জেলার অত্যন্ত সুনামধন্য এলাকা পর্যটন শহর চায়ের রাজধানীখ্যাত শ্রীমঙ্গল, অথচ এই শ্রীমঙ্গল শহরকে সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন করে রাখতে নেই কোন উদ্যোগ। তাতে পর্যটকদের কাছে সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে শ্রীমঙ্গলের। এখানে প্রতিদিন দেশী বিদেশী পর্যটকরা বেড়াতে আসেন। কিন্তু শ্রীমঙ্গলে বেড়াতে আসা পর্যটকদের কাছে দর্শনীয় স্থানসমুহ ছাড়া এই শহরের তেমন কোন সৌন্দর্য তাদের চোখে পড়ে না। পর্যটক স্থানসমুহের সৌন্দর্য উপভোগ করতে এসে তাদেরকে নানা সমস্যায় পড়তে হয়, এতে করে বিগত বছরের তুলনায় দিনদিন পর্যটকদের আগমন কমে যাচ্ছে শ্রীমঙ্গলে।

এ.এস.কাঁকন, MB TV মৌলভীবাজার।