মৌলভীবাজার নারী আইনজীবী আবিদা সুলতানার হত্যার রহস্য উদঘাটন-দায় স্বীকার ইমামের

180

মৌলভীবাজারঃ মৌলভীবাজার বড়লেখায় পিতার বাড়ীতে আইনজীবী আবিদা সুলতানা হত্যা রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। মামলায় ১০ দিনের রিমান্ডে থাকা ইমাম তানভীর আলম জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন।
শনিবার ১ জুন বিকেলে মৌলভীবাজার মডেল থানায় এক প্রেস ব্রিফিংয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রাশেদুল ইসলাম জানিয়েছেন, ঘটনার মাস দেড়েক আগে থেকে বিভিন্ন কারণে ভাড়াটে ইমাম তানভীরের সাথে ঝগড়া হয় আবিদার। ঝগড়ার পর থেকে তানভীরকে বাসা ছেড়ে দেওয়ার জন্য চাপ দেন আবিদা। বাসা ছেড়ে দেওয়ার চাপে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন ইমাম তানভীর । আর এই ক্ষোভ থেকে আবিদাকে হত্যা করেছেন ইমাম। সিমেন্টের পানির ফিল্টারের ঢাকনা দিয়ে আবিদার মাথায় আঘাত করা হয়েছে। ফলে অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরনে আবিদা মারা গেছেন বলে ধারনা করছে পুলিশ।

এই হত্যায় ইমামের পরিবারের অন্য কেউ জড়িত বলে কোন তথ্য-প্রমান পাওয়া যায়নি। তবে তদন্ত চলছে এবং ময়না তদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর হত্যার বিষয়টি আরো পরিস্কার হওয়া যাবে বলে জানায় পুলিশ। এরই মধ্যে তানভীরের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে শ্রীঙ্গল থেকে আবিদার ব্যবহৃত মুঠোফোন দুটি উদ্ধার করা হয়েছে।
গত ২৬ মে রোববার মধ্যরাতে বড়লেখায় পিতার বাড়ী থেকে আবিদা সুলতানার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় বড়লেখা থানায় ইমামকে প্রধান আসামী করে হত্যা মামলা করেন আবিদার স্বামী মো. শরিফুল ইসলাম বসুনিয়া।

:: নিজস্ব প্রতিবেদক. মৌলভীবাজার ::

নতুন সংবাদ ও তথ্যচিত্র দেখতে MB TV সাবস্ক্রাইব করে আমাদের সাথে থাকুন।