বড়লেখার ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সদস্যদের সংবাদ সন্মেলন

37

বড়লেখার ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সদস্যদের সংবাদ সন্মেলন

বড়লেখার ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সদস্যদের সংবাদ সন্মেলনমৌলভীবাজার : বড়লেখা উপজেলার দক্ষিনভাগ (দক্ষিণ) ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজির উদ্দিনের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করে অনিয়ম ও দুর্নীতির বিভিন্ন অভিযোগ এনেছেন একই ইউনিয়নের ৯ জন ইউপি সদস্য । সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে আনিত অভিযোগের তদন্ত ও তাকে বরখাস্তের দাবি জানান তারা। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ৭নং ওয়ার্ড সদস্য আজিজুল ইসলাম। লিখিত বক্তব্যে জানান, চেয়ারম্যান আজির উদ্দিন ইউনিয়নের বিভিন্ন টেক্স আদায় করে ব্যাংকে জমা না দিয়ে নিজে আত্মসাৎ করেছেন, কাবিটা, কাবিখা, টিআর, কর্মসৃজন কর্মসূচি, এডিপি, ভূমি হস্তান্তর ফি’ র ১ভাগ, হোল্ডিং টেক্স, ভিজিডির টাকা আত্মসাৎসহ নানা অনিয়মের সাথে জড়িত রয়েছেন। হাজিরা খাতায় দেয়া স্বাক্ষর জাল করে বিভিন্ন প্রজেক্ট তৈরি করে চেয়ারম্যান তা আত্মসাৎ করেছেন। তিনি বিভিন্ন নারী কেলেংকারীর সাথে জড়িত ও তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলা রয়েছে বলেও জানানো হয়। তারা বলেন, দলীয় প্রভাব খাটিয়ে তিনি এসব করছেন। বিগত ২০১৭ সালের ১৫ নভেম্বর জেলা প্রশাসক ও ২০১৯ সালের ৫ আগস্ট বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর তার বিরুদ্ধে লিখিত অনাস্থা প্রস্তাব করা হলেও কোনও ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। এমনকি সরকার নির্ধারিত ইউপি সদস্যদের ভাতাও প্রদান করা হচ্ছে না। তারা সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা ও বরখাস্তের দাবি জানান।সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য মুহিবুর রহমান, মদন সাহা, সওয়াব আলী, দেলোয়ার হোসেন দুলাল, সাহেদুল ইসলাম, আমিনুল হক ও পারুল বেগম।:: নিজস্ব প্রতিবেদক – MB TV ::

Gepostet von MB TV am Sonntag, 8. September 2019

 

মৌলভীবাজার : বড়লেখা উপজেলার দক্ষিনভাগ (দক্ষিণ) ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজির উদ্দিনের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করে অনিয়ম ও দুর্নীতির বিভিন্ন অভিযোগ এনেছেন একই ইউনিয়নের ৯ জন ইউপি সদস্য । সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে আনিত অভিযোগের তদন্ত ও তাকে বরখাস্তের দাবি জানান তারা। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ৭নং ওয়ার্ড সদস্য আজিজুল ইসলাম। লিখিত বক্তব্যে জানান, চেয়ারম্যান আজির উদ্দিন ইউনিয়নের বিভিন্ন টেক্স আদায় করে ব্যাংকে জমা না দিয়ে নিজে আত্মসাৎ করেছেন, কাবিটা, কাবিখা, টিআর, কর্মসৃজন কর্মসূচি, এডিপি, ভূমি হস্তান্তর ফি’ র ১ভাগ, হোল্ডিং টেক্স, ভিজিডির টাকা আত্মসাৎসহ নানা অনিয়মের সাথে জড়িত রয়েছেন। হাজিরা খাতায় দেয়া স্বাক্ষর জাল করে বিভিন্ন প্রজেক্ট তৈরি করে চেয়ারম্যান তা আত্মসাৎ করেছেন। তিনি বিভিন্ন নারী কেলেংকারীর সাথে জড়িত ও তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলা রয়েছে বলেও জানানো হয়।

তারা বলেন, দলীয় প্রভাব খাটিয়ে তিনি এসব করছেন। বিগত ২০১৭ সালের ১৫ নভেম্বর জেলা প্রশাসক ও ২০১৯ সালের ৫ আগস্ট বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর তার বিরুদ্ধে লিখিত অনাস্থা প্রস্তাব করা হলেও কোনও ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। এমনকি সরকার নির্ধারিত ইউপি সদস্যদের ভাতাও প্রদান করা হচ্ছে না। তারা সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা ও বরখাস্তের দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য মুহিবুর রহমান, মদন সাহা, সওয়াব আলী, দেলোয়ার হোসেন দুলাল, সাহেদুল ইসলাম, আমিনুল হক ও পারুল বেগম।

নিজস্ব প্রতিবেদক

MB TV – মৌলভীবাজার