বজ্রকন্ঠে নাম না থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জোহরা আলাউদ্দিন

178

MB প্রতিবেদক :  মৌলভীবাজারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ স্মরণে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে শনিবার (৭মার্চ) সকাল ১১টায় জেলা পরিষদের বাস্তবায়নে বঙ্গবন্ধুর ভাষনের ম্যুরাল বজ্রকন্ঠ উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার-হবিগঞ্জ সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য সৈয়দা জোহরা আলাউদ্দিন। এসময় বজ্রকন্ঠের নেইমপ্লেইটে তাঁর নাম না থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সংসদ সদস্য সৈয়দা জোহরা আলাউদ্দিন।

গণমাধ্যমকে দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি জানান, তিনি একজন সম্মানীত ব্যক্তি এবং পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি ১৯৬৭-১৯৬৮ সালে ছাএ রাজনীতীতে যোগদান করেন, তখন থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে লালন করে শেখ হাসিনার পাশে থেকে দেশ ও জনগনের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন,

একজন আদর্শ রাজনীতীবিদ ও আওয়ামীলীগের সৈনিক হিসেবে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ স্মরণে নির্মিত ম্যুরাল নেইমপ্লেইটে তাঁর নাম না থাকায় তিনি দু:খ পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বাঙালির মুক্তি সংগ্রামের ইতিহাসে এক ঐতিহাসিক দিন ৭ই মার্চ ।

১৯৭১ সালের এ দিনে বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের (তৎকালীন রেসকোর্স ময়দান) জনসভায় লাখ লাখ জনতার উদ্দেশে এক ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়ে স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন।

সেই ৭ই মার্চ ভাষণকে আগামী প্রজন্মের কাছে তুলে ধরার জন্য নির্মাণ করা এই ম্যুরাল বজ্রকন্ঠে, তাঁরমত একজন আদর্শবান আওয়ামীলীগের রাজনীতীবিদের নাম কি কারনে লেখা হয়নি তা তাঁর জানা নেই।

জেলা পরিষদের বাস্তবায়নে এমন আয়োজনে তিনি ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়েছেন।