অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে ৬ শ্রমিককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

182

 

MB প্রতিবেদক : মৌলভীবাজার সদর উপজেলার কুশিয়ারা নদী থেকে সরকারী রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের দায়ে ৬ শ্রমিককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) এই অভিযান পরিচালনা করে ভ্রাম্যমান আদালতে এই রায় দেন। ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান পরিচালনায় সহযোগিতা করে মডেল থানা নিয়ন্ত্রিত শেরপুর ফাঁড়ির পুলিশ। অবৈধভাবে বালু উত্তোলন না করার অঙ্গীকারনামায় আটককৃত ২টি ড্রেজার ও ৪টি নৌকা মালিকপক্ষের জিম্মায় ছেড়ে দেওয়া হয়।

জানা যায়, একটি বিশেষ মহল দীর্ঘদিন ধরে সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে কুশিয়ারা নদীর সদর উপজেলা অংশের বাহাদুরপুর এলাকা থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছিল। এ খবর পেয়ে সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি’র) নেতৃত্বে দুপুরে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে বালু উত্তোলনে ব্যবহৃত ড্রেজারে কাজ করা ৬ শ্রমিককে আটক করা হয়। এ সময় বালু উত্তোলন বন্ধ করে মায়ের দোয়া বাবার আদর, মক্কা মদিনা নামে ২টি ড্রেজার ও জুনাঈদ পরিবহণ, আলী পরিবহণ, নৌসান পরিবহণ এবং এমবি এম এন পরিবহণ নামে ৪টি নৌকা আটক করা হয়।

আটককৃতরা হল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আবু সাঈদ, কান্ত মিয়া, বগুড়ার নীরু মিয়া, নারায়ণগঞ্জের রাকিব মিয়া, কিশোরগঞ্জের আব্দুস সালাম ও আব্দুল তৌহিদ। ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে এসিল্যান্ড সঞ্জিত চন্দ্র চন্দ উপযুক্ত সাক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিতে ৬ শ্রমিককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে তিন মাসের কারাদন্ডের রায় দেন।

মডেল থানা নিয়ন্ত্রিত শেরপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সাব্বির আহসান বলেন ৬ ড্রেজার শ্রমিক ভ্রাম্যমান আদালতের রায়ের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা পরিশোধ সাপেক্ষে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। ২টি ড্রেজার ও ৪টি নৌকার মালিকরা অবৈধভাবে বালু উত্তোলন না করার অঙ্গীকার দিলে তাদের জিম্মায় নৌকা ও ড্রেজার ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।